রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:৪৪ পূর্বাহ্ন

জিপিএ-৫ এর পরিবর্তে সিজিপিএ-৪ প্রবর্তনের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ে কর্মশালা

জিপিএ-৫ এর পরিবর্তে সিজিপিএ-৪ প্রবর্তনের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ে কর্মশালা

বাংলাদেশের পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল জিপিএ-৫ এর পরিবর্তে সিজিপিএ-৪ প্রবর্তনের লক্ষ্যে কর্মশালার আয়োজন করতে যাচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী ৮ সেপ্টেম্বর (রোববার) বেলা দেড়টায় রাজধানীতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এই কর্মশালায় সভাপতিত্ব করবেন মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী।

উক্ত কর্মশালায় নিম্ন বর্ণিত শিক্ষাবিদদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে;

অষ্টম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা জেএসসি ও জেডিসি, এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৪ প্রবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বহির্বিশ্বের শিক্ষা ব্যবস্থায় জিপিএ-৫ না থাকায় এবং দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও জিপিএ-৪-এ ফল প্রকাশ হওয়ায় বিদেশে পড়াশোনা এবং চাকরির বাজারে উদ্ভুত সমস্যা নিরসনেই মূলত গ্রেড পয়েন্ট কমানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে পাবলিক পরীক্ষায় গ্রেড পদ্ধতি চালু হয়। ৮০-১০০ নম্বরে গ্রেড ৫ বা এ প্লাস গ্রেড, ৭০-৭৯ নম্বরে ৪ বা এ গ্রেড, ৬০-৬৯ নম্বরে  ৩.৫০ বা এ মাইনাস গ্রেড, ৫০-৫৯ নম্বরে ৩ বা বি গ্রেড, ৪০-৪৯ নম্বরে ২ বা সি গ্রেড, ৩৩-৩৯ নম্বরে ১ বা ডি গ্রেড এবং শূন্য থেকে ৩২ নম্বরে এফ গ্রেড বা পয়েন্ট শূন্য ধরা হয়।

আর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সব বিষয়ে ৮০ এর উপরে নম্বর পেলে সিজিপিএ-৪, ৭৫-৮০ নম্বরে ৩.৭৫, ৭০-৭৫ নম্বরে ৩.৫০, ৬৫-৭০ নম্বরে ৩.২৫, ৬০-৬৫ নম্বরে ৩, ৫৫-৬০ নম্বরে ২.৭৫, ৫০-৫৫ নম্বরে ২.৫০, ৪৫-৫০ নম্বরে ২.২৫, ৪০-৪৫ নম্বরে ২ এবং ৪০ নম্বরের কম পেলে অনুত্তীর্ণ ধরা হয়। লেটার গ্রেডে যথাক্রমে- এ প্লাস, এ, এ মাইনাস, বি প্লাস, বি, বি মাইনাস, সি প্লাস, সি, ডি এবং এফ গ্রেড।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
© নিউজ অনলাইন বিডি। সর্বসত্ব সংরক্ষিত
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web