শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২৫ পূর্বাহ্ন

নিউজ অনলাইন বিডি:
নিউজ অনলাইন বিডি পোর্টালে স্বাগতম। আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনার ছবি ও খবর আমাদেরকে মেইল করুন। দেশ ও জাতির কল্যাণে আমাদের সাথেই থাকুন।
কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে কুয়াকাটা

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে কুয়াকাটা

মেয়র, কুয়াকাটা পৌরসভা
কুয়াকাটা পর্যটনকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে কুয়াকাটা পৌরসভা। অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কুয়াকাটা বাংলাদেশের একমাত্র স্থান যেখানে দাঁড়িয়ে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত উপভোগ করা যায়। পর্যটন খাত বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অন্যতম সম্ভাবনাময় খাত। কুয়াকাটাতে প্রতিবছর লাখো পর্যটকদের আগমন ঘটে। পর্যটন খাতে কুয়াকাটা পৌরসভা প্রতিবছর বিপুল পরিমাণে অর্থ-রাজস্ব অবদান রাখছে এবং সরকারের অর্থনৈতিক উন্নয়নে আরও অবদান রাখার সুযোগ রয়েছে। কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মহামারি আক্রমণে বাংলাদেশের অন্যান্য অঞ্চলের মতো কুয়াকাটা পৌরসভাও রক্ষা পায়নি। করোনা ভাইরাসের বিস্তারের কারণে পর্যটন স্থানগুলো যেন স্থবির । ২০২১ সালের মার্চ মাস থেকে করোনা ভাইরাসের মহামারি সংক্রমণে পর্যটন কেন্দ্রীক কুয়াকাটা পৌরসভা যেন স্থবির হয়ে আছে। করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নির্দেশ অনুযায়ী ০১ এপ্রিল থেকে কুয়াকাটার সকল হোটেল মোটেল রিসোর্ট রেস্তোরা বন্ধ রাখা হয়েছে। পর্যটক ও স্থানীয় জনসাধারণের সুস্বাস্থ্য রক্ষার্থে কুয়াকাটায় আগমন ও বহির্গমন স্থগিত রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে ০৫ এপ্রিল থেকে সরকারের স্বাস্থ্যবিধি পালনে জরুরি নির্দেশনাগুলো মানতে পৌরসভার সর্বস্তরের সকল জনসাধারণকে বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে উৎসাহিত করা হচ্ছে। মহিপুর থানা পুলিশ ও ট্যুরিস্ট পুলিশের সহায়তায় কুয়াকাটাতে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে। কুয়াকাটা পৌরসভা থেকে জনসাধারণের মাঝে নিয়মিত পর্যাপ্ত মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করা হচ্ছে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, পর্যটন কেন্দ্রীক কুয়াকাটা পৌরসভা কোভিড ১৯ করোনা মহামারি সংক্রমণ ও ক্রমাগত লকডাউনে পর্যটন খাত যেরুপ বিরাট ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে তেমনি পর্যটন ব্যবসা-বাণিজ্যের উপর নির্ভরশীল স্থানীয় ছোট-বড় ব্যবসায়ী ও স্থানীয় জনসাধারণ বিরাট ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। সাধারণ মানুষের আয়-রোজগার বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। যার সরাসরি প্রভাব পড়েছে পৌরসভার রাজস্ব খাতের উপর। পর্যটকশূন্য থাকায় কুয়াকাটা পৌরসভার সাধারণমানুষ যেরুপ অর্থনৈতিক সংকটে ভুগছে তেমনি কুয়াকাটা পৌরসভায় বর্তমানে রাজস্ব আয় কমে যাওয়ায় অর্থনৈতিক সংকটে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। এমতাবস্থায় মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন , কোভিড ১৯ মহামারি সংক্রমণে ও ক্রমাগত লকডাউনে অভাবগ্রস্থ সাধারণ মানুষকে যেন আর্থিক সহায়তা ও প্রনোদনা দিয়ে সহযোগিতা করেন। পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়মিত বেতনভাতা প্রদানে যে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছি তার দিকে যেন সদয় দৃষ্টি দেন, মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট এই আকুল আবেদন থাকবে।
বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত এলাকা হলো কুয়াকাটা। প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের জন্য দেশি-বিদেশী পর্যটকদের জন্য একটি বিখ্যাত জায়গা। পর্যটন খাতকে উন্নত করতে যথাযথ উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নিজ হাতে গড়া কুয়াকাটার প্রতি তাঁর বিশেষ নজর রয়েছে। কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতকে ঘিরে কুয়াকাটাকে পর্যটকের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত একটি পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশে সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় কুয়াকাটাকে পৌরসভা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা হয়। বর্তমানে কোভিড ১৯ মহামারি পরিস্থিতিতেও কুয়াকাটা পৌরসভার উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে।
এই অপার সম্ভাবনাময় পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটাকে দেশ ও বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে কুয়াকাটা পৌরসভা সংলগ্ন পর্যটন স্থানগুলোর উন্নয়ন করা একান্ত প্রয়োজন। যেন দেশী-বিদেশী পর্যটক ও স্থানীয় জনসাধারণ স্বাচ্ছন্দে উপভোগ করতে পারে। এতে দেশের রাজস্ব খাতও ইনশাআল্লাহ বৃদ্ধি পাবে।
এই পর্যটন কেন্দ্রটিতে সারা বছর পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত থাকে। কিন্তু রাস্তাঘাট ও বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা, বিনোদনকেন্দ্র , পার্ক ইত্যাদির অপ্রতুলতায় অনেক সময় ভ্রমণপিপাসু পর্যটক ও স্থানীয় জনসাধারণের সুবিধাদানে ব্যর্থতা লক্ষ্য করা যায়।
তাই পর্যটন কেন্দ্রীক এই কুয়াকাটা পৌরসভাকে একটি আধুনিক পৌরসভা ও আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র গড়তে যথাযথ উন্নয়নের বিকল্প নেই। আগামীর প্রয়োজনে কুয়াকাটা পৌরসভা গড়তে সকলের সহযোগিতা একান্ত কাম্য। দেশ ও জনগণের স্বার্থে অর্থনৈতিক উন্নয়নের সম্ভাবনা বৃদ্ধিকল্পে কঠোর প্রতিকূলতার মধ্যেও আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে যাব।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
প্রকাশকঃ আরিফ জামান, সম্পাদকঃ সাইফ হাসান, বার্তা সম্পদকঃ মাহবুবা রেহমান ©নিউজ অনলাইন বিডি, সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web