রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন

নিউজ অনলাইন বিডি:
নিউজ অনলাইন বিডি পোর্টালে স্বাগতম। আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনার ছবি ও খবর আমাদেরকে মেইল করুন। দেশ ও জাতির কল্যাণে আমাদের সাথেই থাকুন।
উন্নয়নের পথে কুয়াকাটা পৌরসভা

উন্নয়নের পথে কুয়াকাটা পৌরসভা

কুয়াকাটা একটি “গ” শ্রেণির পৌরসভা, স্থাপিত হয় ২০১০ সালের শেষদিকে। ৮.১১ বর্গ কিলোমিটার আয়তনে প্রায় ১৬০০০ লোকের বাস। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি সূর্যাস্ত ও সূর্যোদয় দেখার ইউনিক পর্যটন স্পটকে আন্তর্জাতিকমানের উপভোগ্য করে তুলতে কাজ করছেন নবনির্বাচিত মেয়র জনাব আনোয়ার হোসেন। তাঁর নিরলস প্রচেষ্টায় উন্নয়নের পথে এগিয়ে চলছে কুয়াকাটা পৌরসভা।
পর্যটন নগরী সাগর কন্যা কুয়াকাটায় দায়িত্ব গ্রহণের মাত্র তিন মাসেই কাজ দিয়ে কথা রাখতে শুরু করেছেন কুয়াকাটা পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র মোঃ আনোয়ার হওলাদার। খুব সকাল থেকে শুরু করে মধ্যরাত পর্যন্ত মাঠ, ঘাট, ড্রেনেজ, ডোবা- নালা পরিস্কার, পরিচ্ছন্ন কর্মীর খোঁজ নেয়া, চলমান কাজ পরিদর্শন, বিপদে পরা মানুষের খোজ খবর নেয়াসহ বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনা ও দলীয় কাজ নিয়ে ব্যস্ত রাখছেন নিজেকে। যা দেখে এলাকাবাসিসহ আগত পর্যটকদের মুখে মুখে চলছে মেয়র মহোদয়ের কাজের প্রশংসনীয় আলোচনা। র্নিবাচনে নির্বাচিত হওয়ার পর পরই শপথ গ্রহণের পূর্বে কুয়াকাটা সৈকতে পরে থাকা আনুমানিক ১২ বছর আগের এলজিইডি ভবনের বড় বড় কংক্রিট, যেখানে প্রায়ই সময় পর্যটকরা সমুদ্রে গোসল করতে নেমে মারাত্মক আহত হতো। সেই কংক্রিটগুলোকে নিজ অর্থায়নে প্রায় ২ লাখ টাকা ব্যয় করে অপসারণ করেন যা এলাকাবাসী ও পর্যটকদের মাঝে তাক লাগিয়েছেন। এরপরে ১৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী ও মুজিববর্ষ উৎসব পালনে ১০দিন ব্যাপী কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের বিনোদনের জন্য দেশের বিভিন্ন শিল্পী ও কুয়াকাটা শিল্পীগোষ্ঠী দিয়ে কনর্সাট করে সকলের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন।
সম্প্রতি কুয়াকাটার বেরী বাঁধের দক্ষিণ দিকে বিটিশ আমলের পড়ে থাকা বিশাল প্রাকৃতিক ডোবাকে (যা বিগত দিনে ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছিল) পরিষ্কার-পরিছন্ন করে সৌন্দর্য্য বর্ধনে লেক করার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন যাতে দেশ-বিদেশীরা পর্যটকরা ব্যাপক বিনোদন পাবে বলে সকলে ধারণা করছেন। তাতে প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা ব্যয় হবে বলে সম্ভাব্য বাজেট পরিকল্পনা করেছেন পৌর কর্তৃপক্ষ। র্দীঘ দিন ময়লার ভাগাড় হিসেবে পড়ে থাকা এ লেকটি হতে পারে কুয়াকাটা পৌরসভার সর্ব উৎকৃষ্ট বিনোদন কেন্দ্র। সাবেক কেয়ার টেকার ফয়েজ মিয়া র্ফাম এন্ড ফার্মস লিঃ- নারিকেল বাগানের কুদুস মিয়া (৫৫) জানান, মেয়র আনোয়ার হাওলাদার মহোদয় আমাদের এই যে কত বড় একটি কাজ করছেন যা আমি ১২ বছর চাকরি করে পারিনি, মনে হয় বাকি কাজও সে করতে পারবে সকলেই তার জন্য দোয়া করছেন। কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি নাসির উদ্দিন বিপ্লব জানান, মাত্র তিন মাস হলো মেয়র হলো তার মধ্যে যে দ্বায়িত্ব নিয়ে কাজ শুরু করছে এ ভাবে যদি চলতে থাকে সে দিক খেয়াল করি তাতে ভালই চলছে । সকলের এই কাজে সহযোগিতাকরনে কুয়াকাটা আধুনিক মডেল পৌরসভা হবে । স্বপ্নের সিঁড়িতে দাড়িয়ে পৌর মেয়র মোঃ আনোয়ার হাওলাদার জানান, ভোটের আগে জনগনকে কথা দিয়ে ছিলাম নির্বাচিত হতে পারলে আপনাদের নিয়ে কাজ করব। চেস্টায় ত্রুটি করব না, মন দিয়ে কাজ করছি বাকি দিনগুলোতে আল্লাহ উপর ভরসা রয়েছে। আপনারা ও জনগণ সহায়তা করলে ইচ্ছে পোষন করছি আগামি পাচ বছর পরিকল্পিত ভাবে কাজ করে নতুন কিছু সৃষ্টি করতে চাই । আগত পর্যটক ও আমার পৌর জনগন যেন কাজের মাঝে আমাকে স্মরণ রাখে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




themesba-zoom1715152249
প্রকাশকঃ আরিফ জামান, সম্পাদকঃ সাইফ হাসান, বার্তা সম্পদকঃ মাহবুবা রেহমান ©নিউজ অনলাইন বিডি, সর্বসত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপে Host R Web